ঢাকা, বাংলাদেশ শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:৪২ অপরাহ্ন
ক্যান্ডির প্যাকেটে মোড়ানো মৃত্যু রহস্য
কলকাতা টিভি ডেস্ক:
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৪ নভেম্বর, ২০২১, ০৩:২৯:০২ পিএম
  • / ৫২ বার খবরটি পড়া হয়েছে

ক্যান্ডি, এই নামটা শুনলে প্রথমে আপনার মাথায় কী আসবে! নিশ্চয় প্যাকেটে মোড়ানো ছোট ছোট মিষ্টি চকলেটের কথা। স্কুল-কলেজে বন্ধুদের সাথে ক্যান্ডি শেয়ার করে খাওয়ার কিছু মিষ্টি মুহুর্ত। কিন্তু জানেন কী এই ক্যান্ডির স্বাদই আপনাকে রঙবেরঙের দুনিয়ায় নিয়ে যেতে পারে, এমনকি আপনার সাথে দেখা করাতে পারে ডেভিল মাসানের!

তবে এই ক্যান্ডির স্বাদ আপনার স্কুল-কলেজে খাওয়া সেই ক্যান্ডির নয়, আর যেখানে-সেখানে মিলবেও না এই ক্যান্ডি। এই ক্যান্ডির স্বাদ নিতে হলে আপনাকে যেতে রুদ্রকুণ্ডে। যেখানে ক্যান্ডি খেলে আপনাকে মুখোমুখি হতে হবে মাসানের। মাসান যার আর এক নাম মৃত্যু।

আমাদের আজকের গল্প ক্যান্ডির প্যাকেটে মোড়ানো সেই মৃত্যু রহস্যের। চলুন দেরি না করে শুরু করা যাক।

ছোট্ট একটি শহর রুদ্রকুণ্ড। এই শহর উপর থেকে দেখতে যতটা সুন্দর, ভেতর থেকে ততই যেন কুৎসিত। শহরের অলিতে,গলিতে, পাহাড়ের চূড়ায় সব জায়গা জুড়ে কেবল মাসানের ভয় আর রহস্যে মোড়া।

রুদ্রকুণ্ডের বিখ্যাত আবাসিক স্কুল আরভিএস। হঠাৎই একদিন নৃশংসভাবে খুন হয় স্কুলের ছাত্র মেহুল আর নিখোঁজ হয় তার বান্ধবী কলকি। ঘটনার তদন্তভার বর্তায় ডিএসপি রত্নার উপর। মেহুলের লাশ দেখে সবাই ধারণা করে মেহুলকে মাসান খুন করেছে।

এইসময় গল্পে আগমন হয় ওই স্কুলের শিক্ষক এবং মেহুল ও কালকির মেন্টর জায়ান্তের। জায়ান্ত মেহুলের লাশ দেখে মানসিক ভাবে ভেঙে পড়ে। সে দাবি করে স্কুলের ৩ জন ছাত্র ইমরান, জন আর সঞ্জয় যারা মেহুলকে স্কুলে বুলিং করতো তারা মেহুলের সাথে কিছু করেছে। সেই হিসেবে ডিএসপি রত্না ইমরান, জন আর সঞ্জয়কে প্রশ্ন করতে থাকে। সেই সময় মেহুলের আলমারি সার্চ করতে করতে এক প্যাকেট ক্যান্ডি নিচে পড়ে যায়। ইমরান আসতে করে সেটা লুকিয়ে ফেললেও রত্নার চোখ এড়াতে পারে না তা। রত্না ক্যান্ডির প্যাকেট নিয়ে চলে যায়।

রত্মা ক্যান্ডি নিয়ে চলেম গেলে ভয় পেয়ে যায়। তখন তারা একজনকে ফোন দেয় যাকে সাদা খরগোশের মুখোস পরে থাকতে দেখা যায়। তাকে পুরো ঘটনা জানালে রেগে সে ফোন কেটে দেয়।

এরপর রত্না এবং জায়ান্ত কালকির খোজে তার বাড়িতে যায়। সেখানে কালকির বাবা নরেশ কালকির নামে উল্টা পালটা বলতে থাকে। রত্না তাকে পুলিশি পাহারায় রেখে দেয়। সেদিন রাতে ডিএসপি রত্না সাদা খরগোশের মুখোস পরা ওই লোকটির সঙ্গে দেখা করতে যায়। সাদা খরগোশের মুখোস পরা ওই লোকটি আসলে বায়ু যে রুদ্রকুণ্ডের বিধায়কের ছেলে। সেই সারা শহরে ক্যান্ডি সাপ্লাই দেয়। কিন্তু এই মুহুর্তে জানা যায় রত্না আসলে বায়ুর বিশেষ বন্ধু। তাদের মধ্যে সম্পর্ক রয়েছে। রত্না যখন বায়ুকে প্রশ্ন করে সে মেহুলকে খুন করেছে কী না সে অস্বীকার করে।

এরপর মেহুলের পোষ্টমর্টামের এক চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে আসে। তার পেটের ভেতর থেকে নরেশের ছুরির টুকরো পাওয়া যায়। পুলিশ তাকে ধরতে গেলে নরেশ পালিয়ে যায়। কিন্তু বায়ু তাকে ধরে পুলিশের হেফাজতে দিয়ে দেয়।

কিন্তু মেহুলের মৃত্যু আর কালকিকে খুঁজে না পেয়ে ভেঙে পড়ে তাদের মেন্টর জায়ান্ত। সে তখন আত্মহত্যার চেষ্টা করে। কিন্তু এই সময় তার সামনে ক্ষত-বিক্ষত অবস্থায় কালকি এসে হাজির হয় এবং বলে মাসান মেহুলকে মেরে ফেলেছে।এরপর কালকিকে নিজের বাড়িতে নিয়ে যায় জায়ান্ত। সেখানে তার স্ত্রী যে নিজের মেয়েকে হারিয়ে মানসিক ভাবে বিপর্যস্ত কালকিকে নিজের মেয়ে বিনি ভাবে এবং তার যত্ন নেয়।

কালকির কাছ থেকে জায়ান্ত একটা ক্যামেরা পায়। যেখানে সে দেখে ক্যান্ডির মধ্যে ড্রাগস মিশিয়ে স্কুলে সাপ্লাই দেওয়া হচ্ছে। মেহুল সেই র‍্যাকেট প্রকাশ করার জন্য ইমরান, জন আর সঞ্জয়ের পিছু নিয়ে সে বায়ুর পার্টিতে যায়। সেই পার্টির সবকিছু ভিডিও করে। জায়ান্ত তখন বুঝতে পারে ওই ক্যান্ডি কোনো সাধারণ ক্যান্ডি না, এই ক্যান্ডির ছুতোই চলছে বড় মাদকচক্র। তখন সে রত্নাকে বিষয়টি জানায় কিন্তু সে কোনোভাবেই বিষয়টি মানতে চায় না এবং জায়ান্ত অপমান করে বের করে দেয় থানা থেকে।

এরই মাঝে নরেশ গ্রেপ্তারের কথা কালকি জানতে পারে এবং নরেশকে নির্দোষ দাবি করে তার সঙ্গে দেখা করতে যায়। এই সময় কালকিকে নিয়ে থানায় উপস্থিত হয় জায়ান্ত। তখন রত্না রেগে যায় জায়ান্তের উপর এবং তাকে গ্রেপ্তার করার হুমকি দেয়। পড়ে কালকির অনেক অনুরোধের পড় তাকে নরেশের সঙ্গে দেখা করতে দেওয়া হয়।

এরপর মেহুলের স্মরণে স্কুলে প্রার্থনা করার আয়োজন করা হয়। সেখানে কালকিও উপস্থিত হয়। সেইসময় প্রিন্সিপাল জানায় মেহুলকে খুন করেছে কালকির বাবা। এই কথা শুনে সবাই কালকির উপর হামলা করে। কিন্তু কালকি বলে মেহুলকে মাসান মেরেছে। কিন্তু কেউ তার কথা বিশ্বাস করে না। কিন্তু মাসানের কথা শুনে ভয় পেয়ে যায় রিতু। এইসময় জায়ান্ত কালকিকে রক্ষা করে বাড়ি নিয়ে যায়।

এরপর রিতু জায়ান্তের বাড়ি যায় কালকির সঙ্গে দেখা করতে এবং সে জানায় সেও দেখেছে মাসানকে এবং সে স্কুলের ফাদার এবং প্রিন্সিপালকে বিষয়টি জানিয়েছে কিন্তু তারা এই বিষয়ে কোন পদক্ষেপ নেয়নি। রিতুর গল্পে উঠে আসে মাসানের পাশবিকতার গল্প।

সুযোগ পেলেই স্কুলের মেয়েদের উপর মাসান হামলা করে এবং তাদের রেপ করে তাদের গলায় একটা মার্ক করে দেয়। এরপর একে একে সব মেয়েরাই মুখ খুলতে শুরু করে এবং রহস্য আরও ঘনীভূত হতে থাকে।

তবে এই মাসান আসলে কে? কেনই বা সে স্কুলের বাচ্চাদের উপর হামলা করে? বিধায়ক মানি রানাউত এবং তার ছেলে বায়ুই কী মাসান?

এইসব প্রশ্নের উত্তর মিলবে ওটিটি প্লার্টফর্ম ভুটের অরিজিনাল ওয়েব সিরিজ ‘ক্যান্ডি’-তে। ক্যান্ডির প্রতিটি ভাজেই রয়েছে রহস্যের স্বাদ। প্রায় চার নম্বর এপিসোড পর্যন্ত টানটান উত্তেজনা কাহিনিতে। এরপর ধীরে ধীরে রহস্যের জাল কাটতে শুরু করে।তাতে জমতে শুরু করে জটিলতার মেদ।

তবে শেষ পর্যন্ত শেষ না করলে আপনার পক্ষে বোঝা সম্ভব নয় আসল খুনীকে বা মাসান আসলে কী।

রনিত রায় বেশ ভাল অভিনয় করেছেন। তাঁকে পাল্লা দিয়েছেন ঋদ্ধি কুমার ও নকুল রোশন সহদেব । রিচা চড্ডা কিছু কিছু জায়গায় অনবদ্য। তবে কিছু কিছু জায়গায় তাঁকে ডিএসপির চরিত্রে বেমানান মনে হয়েছে। ভারী চেহারা নিয়ে অপরাধীর পিছনে ছোটার জন্য বেশ কসরত করতে হয়েছে অভিনেত্রীকে। রণিতের স্ত্রীর চরিত্রে কন্নড় অভিনেত্রী অঞ্জু আলভা নায়েক বলিষ্ঠ।

তবে শেষের দিকে গল্পে জটিলতা বেশি। রহস্য উন্মোচনের জায়গাটিও বড় দুর্বল। সেখানেই গল্প শেষ হয়ে যেতে পারত। অযথা পরবর্তী সিজন তৈরির ইঙ্গিত দেওয়াটা খুব প্রয়োজন ছিল বলে মনে হয় না। সিরিজের দ্বিতীয়, তৃতীয় সিজন তৈরি করা এখন যেন ‘আসছে বছর আবার হবে’র মতো হয়ে যাচ্ছে। তা ‘ক্যান্ডি’র ক্ষেত্রে পরিচালক আশিস আর শুক্লা না রাখলেও পারতেন। কিছু খামতি বাদ দিলে ‘ভুট’ প্ল্যাটফর্মের এ সিরিজ মোটের উপর তেমন মন্দ নয়। একবার দেখে নেওয়া যেতেই পারে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই মুহূর্তে

নৃবৈজ্ঞানিক গবেষণা পদ্ধতি ব্যবসায়িক পণ্য জরিপ ও বাজার যাচাই করতে খুবই যুগোপযোগী
বৃহস্পতিবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২১
এখন যে কোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বাংলাদেশ সদাপ্রস্তুত : প্রধানমন্ত্রী
বৃহস্পতিবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২১
দীর্ঘ ২৪ বছরে পার্বত্য শান্তি চুক্তি, বাস্তবায়ন নিয়ে ক্ষোভ
বৃহস্পতিবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২১
দুই সিটি করপোরেশনের ভাড়াটে চালকরা পালিয়েছেন : নগরজুড়ে বর্জ্যের স্তূপ
বৃহস্পতিবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২১
সাভারে শবে বরাতের রাতে ৬ ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা : ১৩ জনের ফাঁসির আদেশ
বৃহস্পতিবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২১
খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে রাজনীতি করছে বিএনপিঃ বাহাউদ্দিন নাছিম
বুধবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২১
উইঘুরদের নির্যাতন-পীড়নে চীনের নেতারা, ফাঁস জিনজিয়াং পেপারস
বুধবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২১
‘বিজয়ের মাসে ৫জি যুগে প্রবেশ করবে বাংলাদেশ’
বুধবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২১
বাসচাপায় শিক্ষার্থীর মৃত্যুর সঙ্গে জড়িত সন্দেহে বিএনপি!
বুধবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২১
যেসব খাতে পাকিস্তান-ভারতকে পেছনে ফেলেছে বাংলাদেশ
বুধবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২১
খবরের আর্কাইভ