ঢাকা, বাংলাদেশ শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪:৪৩ অপরাহ্ন
প্রভাষক থেকে মাদরাসার অধ্যক্ষ পদে নিয়োগের সুযোগ দিতে রুল
কলকাতা টিভি ডেস্ক:
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৫ নভেম্বর, ২০২১, ০৬:১০:১৮ পিএম
  • / ৯৫ বার খবরটি পড়া হয়েছে

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (মাদরাসা) জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা-২০১৮ (২৩ নভেম্বর ২০২০ পর্যন্ত সংশোধিত) এর মাধ্যমে আগের নীতিমালা বাতিল করে আলিম স্তরের আরবি প্রভাষক পদ থেকে কামিল, ফাজিল (পাস) এবং আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষ ও মুহাদ্দিস পদে নতুন নিয়োগের প্রক্রিয়ায় আবেদনের সুযোগ না দেওয়া কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

একইসঙ্গে আলিম স্তরের আরবির প্রভাষক পদ থেকে কামিল, ফাজিল (পাস) এবং আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষ ও মুহাদ্দিস পদে নতুন নিয়োগের প্রক্রিয়ায় আবেদনের সুযোগ দেওয়ার বিধি অন্তর্ভুক্ত করার নির্দেশনা কেন দেওয়া হবে না, রুলে তাও জানতে চাওয়া হয়েছে।

সোমবার (১৫ নভেম্ববর) দেশের বিভিন্ন এলাকার আলিম মাদরাসার ৮ জন আরবি প্রভাষকের দায়ের করা রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রুল জারি করেন।

আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব (কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগ) ও মাদরাসা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকসহ (ডিজি) সংশ্লিষ্ট ৫ জনকে এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। আদালতে রিটকারীদের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট বিপুল বাগমার।

পরে অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া বলেন, বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (স্কুল, কলেজ, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো) এর শিক্ষক ও কর্মচারীদের বেতন-ভাতাদির সরকারি অংশ দেওয়া এবং জনবলকাঠামো সম্পর্কিত নির্দেশিকা, ২০১০ (সংশোধিত, ২০১৩) অনুসারে আলিম স্তরের আরবির প্রভাষক পদ থেকে কামিল, ফাজিল (পাস) এবং আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষ ও মুহাদ্দিস পদে নতুন নিয়োগের প্রক্রিয়ায় আবেদনের সুযোগ ছিল। কিন্তু বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (মাদরাসা) জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা-২০১৮ (২৩ নভেম্বর ২০২০ পর্যন্ত সংশোধিত) এর মাধ্যমে আগের নীতিমালা বাতিল করে আলিম স্তরের আরবির প্রভাষক পদ থেকে কামিল, ফাজিল (পাস) এবং আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষ ও মুহাদ্দিস পদে নতুন নিয়োগের প্রক্রিয়ায় আবেদনের সুযোগ না রেখে ও ইবতেদায়ি প্রধান, দাখিল মাদরাসার সুপারদের আবেদনের সুযোগ দিয়ে নীতিমালা প্রণয়ন করা হয়।

এ কারণে মাদরাসা শিক্ষক আব্দুল মান্নান, জয়নুল আবেদীন, আব্দুল মান্নান, মোহাম্মদ নুরুল হক, মোহাম্মদ মুসা কাজেম, মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন, মো. জালাল উদ্দিন এবং মুহাম্মদ ছায়েদুল হক হাইকোর্টে রিট করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই মুহূর্তে

নৃবৈজ্ঞানিক গবেষণা পদ্ধতি ব্যবসায়িক পণ্য জরিপ ও বাজার যাচাই করতে খুবই যুগোপযোগী
বৃহস্পতিবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২১
এখন যে কোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বাংলাদেশ সদাপ্রস্তুত : প্রধানমন্ত্রী
বৃহস্পতিবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২১
দীর্ঘ ২৪ বছরে পার্বত্য শান্তি চুক্তি, বাস্তবায়ন নিয়ে ক্ষোভ
বৃহস্পতিবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২১
দুই সিটি করপোরেশনের ভাড়াটে চালকরা পালিয়েছেন : নগরজুড়ে বর্জ্যের স্তূপ
বৃহস্পতিবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২১
সাভারে শবে বরাতের রাতে ৬ ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা : ১৩ জনের ফাঁসির আদেশ
বৃহস্পতিবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২১
খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে রাজনীতি করছে বিএনপিঃ বাহাউদ্দিন নাছিম
বুধবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২১
উইঘুরদের নির্যাতন-পীড়নে চীনের নেতারা, ফাঁস জিনজিয়াং পেপারস
বুধবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২১
‘বিজয়ের মাসে ৫জি যুগে প্রবেশ করবে বাংলাদেশ’
বুধবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২১
বাসচাপায় শিক্ষার্থীর মৃত্যুর সঙ্গে জড়িত সন্দেহে বিএনপি!
বুধবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২১
যেসব খাতে পাকিস্তান-ভারতকে পেছনে ফেলেছে বাংলাদেশ
বুধবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২১
খবরের আর্কাইভ